দারিদ্র্যপীড়িত ৬০ উপজেলার জন্য আসছে বিশেষ প্রণোদনা

বিপুল ভর্তুকির চাপ কমাতে গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পরও যাতে জীবনযাত্রায় মূল্যস্ফীতির নেতিবাচক প্রভাব না পড়ে সেজন্য কৃষক ও কর্মহীন দরিদ্রদের জন্য পৃথক প্রণোদনা প্যাকেজ এবং ওএমএস বিতরণের পরিকল্পনা করছে অর্থ মন্ত্রণালয়। এর অংশ হিসেবে দারিদ্র্যের হার ৩০ শতাংশের বেশি এমন ৬০ উপজেলার দরিদ্র কর্মহীনদের জন্য কর্মসৃজন কর্মসূচিতে পৃথক প্রণোদনা দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। সম্প্রতি গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়ানো ও তার প্রভাব মোকাবেলায় করণীয় বিষয়ে একটি কৌশলপত্র উপস্থাপন করেছে অর্থ বিভাগ। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বাজেট মনিটরিং ও সম্পদ কমিটির সভায় প্রণোদনা দেয়ার এ পরিকল্পনার কথা উঠে এসেছে।

উচ্চ আমদানি ব্যয়, টাকার অবমূল্যায়ন, আন্তর্জাতিক বাজারে পণ্যমূল্য বৃদ্ধির পাশাপাশি আন্তর্জাতিক জাহাজীকরণ ব্যয় কয়েক গুণ বেড়ে যাওয়ায় মূল্যস্ফীতির চাপে সাধারণ জনগোষ্ঠীর জীবনমানে নেতিবাচক প্রভাব পড়ার আশঙ্কা করছেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। এদিকে সারে ভর্তুকির পরিমাণ বেড়ে বরাদ্দের তিন গুণ হওয়ার আশঙ্কা থাকলেও কভিড মহামারীর সময়ে দেশের খাদ্যনিরাপত্তার কথা চিন্তা করে কৃষি উৎপাদন স্বাভাবিক রাখতে আপাতত দাম বাড়ানোর কোনো সিদ্ধান্ত নিচ্ছে না সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে সারের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী মো. আবদুর রাজ্জাক। এ প্রসঙ্গে তিনি বণিক বার্তাকে বলেন, সারে যতই ভর্তুকি প্রয়োজন হবে সেটা সরকার বহন করবে। খাদ্যনিরাপত্তার কথা চিন্তা করে আপাতত সরকার সারের দাম বাড়াবে না।

Read more on বণিকবার্তা