জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কৌশল সংশ্লিষ্ট জেন্ডার নীতি

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মহোদয়ের নেতৃত্বে এবং সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি বাস্তবায়নকারী ৩৫টি মন্ত্রণালয়/বিভাগের সচিবগণের সমন্বয়ে গঠিত সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি সংক্রান্ত কেন্দ্রীয় ব্যবস্থাপনা কমিটি (CMC) শীর্ষক আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটি কর্তৃক ২০১৮ সালের মে মাসে এই নীতিটি পর্যালোচিত ও অনুমোদিত হয়েছে।

বাংলাদেশি নারীরা কঠোর পরিশ্রমী; অথচ জেন্ডার বৈষম্যমূলক নিয়মনীতি ও প্রথার কারণে অধিকাংশ আর্থ-সামাজিক সূচকে তারা পুরুষের তুলনায় পিছিয়ে আছে। এ পিছিয়ে থাকার আরেকটি মূল কারণ হল সবাইকে সামাজিক নিরাপত্তা সেবার আওতায় নিয়ে আসতে না পারা। এটি প্রমাণিত যে, দারিদ্র্য, কর্মসংস্থান, মানব উন্নয়ন, নিরাপত্তা ও অভিঘাতসহনশীলতাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারী-পুরুষ বৈষম্য কমিয়ে আনতে একটি সুগঠিত সামাজিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। অবশ্য এটিও বোধগম্য যে কেবল একটি সু-সংজ্ঞায়িত সামাজিক নিরাপত্তা কৌশলের উপস্থিতিই সব নারীদের জন্য সমানভাবে এর সুফলভোগের নিশ্চয়তা প্রদান করেনা। নারীরা যেন বিবেচনার বাইরে থেকে না যায় তা নিশ্চিত করতে একটি ব্যাপকভিত্তিক ও সমন্বিত এবং জেন্ডার সংবেদনশীল জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা ব্যবস্থার পাশাপাশি প্রয়োজন হবে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতে সম্পূরক পরিষেবা। এজন্য আরও প্রয়োজন হবে নারী-পুরুষ বৈষম্য হ্রাস ও নারীর সামাজিক ক্ষমতায়নের প্রতি বিশেষ জোর দিয়ে প্রস্তুত সহায়ক সামষ্টিক অর্থনৈতিক নীতিমালার। নারী ও পুরুষের অবস্থা ও অবস্থানগত বৈষম্য দূর করতেও জেন্ডার বৈষম্য এবং নারীর ক্ষমতায়নের মত বিষয়গুলির উপর জোর দেওয়া অপরিহার্য। সামাজিক নিরাপত্তার ক্ষেত্রে জেন্ডার সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোর গুরুত্ব স্বীকার করে বাংলাদেশ সরকার জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কৌশলের একটি জেন্ডার নিরীক্ষা (gender diagnostic) পরিচালনার উদ্যোগ গ্রহণ করে। এ নিরীক্ষার পরামর্শ ছিল: নারী জীবনচক্রের প্রতিটি পর্যায়ে জেন্ডার সমতার প্রবর্ধন গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নেয়া। আলোচ্য নীতিটি জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট একটি জেন্ডার নীতির অপরিহার্যতার বিষয়ে নীতি-নির্ধারকদের স্বীকৃতির প্রামাণ্য দলিল। এই নীতি জীবনচক্রের বিভিন্ন পর্যায়ে নারীদের জেন্ডার ভিত্তিক চাহিদার প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে জেন্ডার সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোকে সচেতনভাবে বিবেচনায় রেখে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির নকশা প্রণয়ন এবং বাস্তবায়নে পরিকল্পনাবিদ ও নকশাকারদেরকে পথনির্দেশনা প্রদান করবে।